Success Life IT

CPA & Affiliate Marketing

সিপিএ মার্কেটিং (CPA Marketing) অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর সাথে তুলনা করা যায় কারণ এটা সমানভাবে কাজ করে যদিও এটা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং নয়।

বর্তমানে আধুনিকতার যুগে কোন প্রোডাক্ট সার্ভিস বিজনেস প্রচার করার জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং ব্যবহার করা হয়। ডিজিটাল মার্কেটিং অথবা ইন্টার্নেট মার্কেটিং যেখানে ইন্টারনেটের সাধন গুলো ব্যবহার করে ব্যবসা, কোম্পানির প্রোডাক্ট প্রচার করা হয়। এবং ইন্টারনেটের মাধ্যমে অনলাইন মার্কেটিং এর এই সাধন গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি সিপিএ মার্কেটিং।

এফিলিয়েট মার্কেটিং বলতে আমরা বুঝি কোন কোম্পানির প্রোডাক্ট ও সার্ভিস আমরা যদি অনলাইন মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে বিক্রয় বা সেল দিয়ে থাকি, তাহলে আমরা তার থেকে একটা কমিশন পায় বিক্রি না হলে কমিশন পায় না।

তবে সিপিএ মার্কেটিং বর্তমান যুগের অন্যতম অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মতই। এখানে আমরা কোন প্রোডাক্, কোন সার্ভিস মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে যদি প্রোডাক্টগুলো সেল না ও হয়, তাহলে আমরা কমিশন পাই। তার মানে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মতো প্রোডাক্ট বা সার্ভিস সেল না ও করতে পারি তাহলে ও আমরা ইনকাম পেয়ে যাবো এটাই হলো সিপিএ মার্কেটিং।

তাছাড়া অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মতই সিপিএ মার্কেটিং এর কাজ গুলো অনেকটা সমান। সহজভাবে যদি বলি সিপিএ মার্কেটিং হলো আপনি পণ্য প্রোডাক্ট সেল হলেও একটা কমিশন পাবেন, সেল না হলেও একটা কমিশন পেয়ে যাবেন।

 

✅ চলুন এবার জেনে নিই আমরা প্রফার গাইড লাইন কিভাবে পাবো !!

আমরা এটাও জানি যে প্রফার গাইড লাইন ছাড়া কোন কাজে আমরা সফলতা পেতে অনেক হার্ড হয়ে যাই। আপনি এমন কোন ইন্সিটিউট এ ভর্তি হয়ে যান,

👉 যে ইন্সিটিটিউট এর সাফল্য অনেক, গৌরব অনেক ।

👉 তাদের স্টুডেন্ট গুলোর সাফল্য, রিভিউ দেখে নিন তারা সাকসেস হয়েছে কিনা।

👉 তারা কত বছর ধরে ইনস্টিটিউটের কার্যক্রম চালিয়ে আসছে এবং ছাত্র-ছাত্রীদের স্টুডেন্ট গুলোর ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে শিখিয়ে যাচ্ছে ।

👉 ইনস্টিটিউটের মেন্টর জনি বা শিক্ষক যারা থাকবে তাদের ব্যবহার আচার ঠিকঠাকমতো আছে কিনা। আপনারা জানেন, একটা ইনস্টিটিউটের শিক্ষক এবং স্টুডেন্টদের সম্পর্ক অনেকটা ফ্রেন্ডলি থাকতে হবে। তা না হলে শিক্ষক ভালো কিছু শেখাতে পারবে না এবং স্টুডেন্ট গুলিও ভালো কিছু শিখতে পারবে না। যার জন্য ইনস্টিটিউটের মেন্টরের এবং শিক্ষকের ব্যবহার আচরণ দেখে নেওয়া অনেকটা আবশ্যক।

 

✅ চলুন এবার “সাকসেস লাইফ আইটি”র (Success Life IT) সম্পর্কে কিছু জেনে নি !!

“ সাকসেস লাইফ আইটি ” Success Life IT একটি অনলাইন লার্নিং প্লাটফর্ম। বাংলাদেশের যে কোন জায়গা থেকে আমাদের কোর্সগুলো করতে পারবেন অনলাইনে। এবং কোর্সগুলো সম্পন্য করে ঘরে বসেই আয় করতে পারবেন।

অনেক দীর্ঘ সময় ধরে আমরা ফ্রিল্যান্সিং এর সাথে জড়িত। আমরা ‘ সাকসেস লাইফ আইটি ‘ টিম আপনাদের কে সহযোগীতা করার মাধ্যমে বাংলাদেশের যুব সমাজের বেকারত্ব দূরীকরণে সর্বদা প্রস্তুত।

২০১৮ সাল থেকে আমরা ফ্রিল্যান্সিং এর সাথে জড়িত ও ট্রেইনিং দিয়ে যাচ্ছি । এই পর্যন্ত অসংখ্য ফ্রিল্যান্সার আমরা তৈরী করেছি । আমাদের স্টুডেন্টস রা ফাইবার, আপওয়ার্ক এবং সিপিএ ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটপ্লেস থেকে খুব সহজেই ইনকাম জেনারেট করে থাকে।
এই প্রতিষ্ঠানের ফাউন্ডার এইচ আর তাজু স্যার নিজেই সকল ক্লাস নিয়ে থাকেন। কোন পার্ট টাইম টিচার দিয়ে ক্লাস নেয়া হয় না । তবে সাপোর্ট দেয়ার জন্য সাপোর্ট টীম কাজ করে এবং অনেক সময় স্যার নিজেই সাপোর্ট দিয়ে থাকেন। 24 ঘন্টার ভিতরে সাপোর্টে নক করলে যেকোনো সময় সাপোর্ট দেওয়া হয়।

 

👉 আমাদের student’s এর রিভিউ দেখে নিন !!

✅ চলুন এবার জেনে নি আমাদের ইন্সিটিটিউট এর CPA & Affiliate Marketing কোর্স কি কি থাকছে !!

👉 টোটাল ক্লাসঃ ১২ থেকে ১৪ টি, সপ্তাহে ৩ দিন।

👉 গুগোল মিটের মাধ্যমে অনলাইন লাইভ ক্লাস এবং সাপোর্ট।

👉 ক্লাস গুলা লাইফ টাইমের জন্য পাবেন।

👉 কোর্স চলাকালীন এবং কোর্স শেষে অনলাইন সাপোর্টের ব্যবস্থা।

👉 অভিজ্ঞ শিক্ষক দ্বারা ক্লাস করার সুযোগ।

👉 ১ বছরের জন্য ওয়েবসাইট , Domain এবং Hosting Panel.. >>>2nd Year Renew

👉 কোর্স করলেই পাবেন সিপিএ মার্কেটিং করার জন্য প্রিমিয়াম সফটওয়্যার এবং টুলস।

👉 কোর্সের ভিতরে আয় করার সুযোগ।

👉 কোর্স শেষে সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে।

✅ অবশেষে আমাদের বলার থাকবেঃ

“সাকসেস লাইফ আইটিতে” আজকেই রেজিস্ট্রেশন করে ফেলুন, CPA Marketing ( সিপিএ মার্কেটিং ) কোর্স এর উপরে। এবং ঘরে থেকেই এই লকডাউন অবস্থায় পেশাদার সরকারি চাকরি জীবির স্যালারি থেকে অনেক বেশি দ্বিগুণ ভাবে আয় করুন। নিজে বাঁচুন, নিজের পরিবারকে বাঁচান, নিজের ঘরে অবস্থান করে।

সাকসেস লাইফ আইটি Success Life IT আপনাদেরকে 24 ঘন্টায় সাপোর্ট প্রদান করবে, এবং ক্লাসগুলো সারা জীবনের জন্য পেয়ে যাবেন। এবং যেকোন সময়ে সাকসেস লাইফ আইটির হেল্পলাইনে নক করতে পারবেন।

 

✅ কোর্স ফিঃ
টোটাল ৫০০০ টাকা। এককালীন পরিষদে ১০০০ টাকা ডিসকাউন্ট থাকবে।
তাছাড়া ৩ বার ভেঙে ভেঙে দেয়ার সুযোগ।

তাই আর দেরি না করে এখনি নূন্যতম যে কোনো ফি পেমেন্ট করে ভর্তি হয়ে যান।

প্রথমতঃ payment gateway বাটনে ক্লিক করে যে কোনো মাদ্ধমে এডমিশন ফি জমা দিন।

দ্বিতীয়তঃ Admission now বাটনে ক্লিক করে আপনার সঠিক তথ্য গুলা ও এডমিশন ফি জমা দেয়ার একাউন্ট নম্বরটি উল্লেখ করে এডমিশন ফর্ম সাবমিট করুন।

বাংলা BN English EN हिन्दी HI